ফিচার

নরসিংদীর চরাঞ্চলে সংঘর্ষ: ৫ শতাধিক টেঁটা উদ্ধার, আটক ১৩

নরসিংদীর সদর উপজেলার চরাঞ্চলীয় নজরপুর ইউনিয়নের আলীপুরায় দুই পক্ষের টেঁটাযুদ্ধ পরবর্তি পুলিশের অভিযানে ৫ শতাধিক টেঁটা উদ্ধার ও ১৩ জন কে আটক করা হয়েছে। আজ সোমবার (০৯ ডিসেম্বর) সকাল থেকে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জাকির হাসানের নেতৃত্বে অর্ধশতাধিক পুলিশ এই অভিযান চালায়।

সন্ধ্যায় নরসিংদীর পুলিশ সুপার (এসপি) প্রলয় কুমার জোয়ারদার (বিপিএম বার, পিপিএম) তার কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান।

সংবাদ সম্মেলনে এসপি জানান, আলীপুরায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন ধরে কামাল মেম্বার ও ইসমাইল ওরফে ইসমাইল কোম্পানী গ্রুপের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। এরই জের ধরে সোমবার ভোরে ফজর নামাজের পর ইসমাইল এর লোকজন একই গ্রামের শাহজাহান কাজীর বাড়ির ঘুমন্ত লোকজনের উপর হামলা চালায়। এই হামলায় প্রায় ১০ জন লোক আহত হয়। আহতদের নরসিংদী সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরমধ্যে শাহজাহান কাজী (৫০) ও তার ছেলে মামুন কাজী (৮) কে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

এই হামলার প্রেক্ষিতে শাহজাহান গ্রুপের লোকজনের হামলায় ইসমাইল কোম্পানী গ্রুপের সিফর আলী (১৮) ও অহর উদ্দিন (৪০) আহত হয়। পুলিশকে ফাঁকি দিতে টেঁটাবাজরা ভোর বেলা সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। খবর পেয়ে নরসিংদীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) জাকির হাসান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) শাহেদ আহম্মেদ, নরসিংদী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ সৈয়দুজ্জামান এর নেতৃত্বে সেখানে অভিযান চালানো হয়। ভৌগলিক অবস্থানের কারণে পুলিশ প্রবেশের পূর্বেই তারা খবর পেয়ে যায় ও আত্মগোপনে চলে যায়।

পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ারদার সংবাদ সম্মেলনে বলেন, মাছ শিকার করে জীবিকা নির্বাহের অন্যতম হাতিয়ার ছিল টেঁটা। মূলত নদীর বড় বড় মাছ শিকার করার জন্যই এই হাতিয়ার চরাঞ্চলবাসী ব্যবহার করে আসছিল। তবে বহু বছরের পরিক্রমায় সে টেঁটা এখন যুদ্ধাস্ত্র হিসেবে ব্যবহার হচ্ছে। টেঁটার আঘাতে বহু মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন, বরণ করেছেন পঙ্গুত্ব। তাই এই মরনাস্ত্র টেঁটা তৈরী বন্ধ করতে সবাই কে সোচ্চার হতে হবে। এখন থেকে যার কাছে টেঁটা পাওয়া যাবে তাকেই গ্রেফতার করবে পুলিশ। টেঁটা যুদ্ধ, টেঁটা উদ্ধার ও আটকের ঘটনায় পৃথক পৃথক মামলা রুজু করা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) মোহাম্মদ শফিউর রহমান, বেলাল হোসেন, নরসিংদী প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মাজহারুল পারভেজ মন্টি, নরসিংদী প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি নিবারণ রায়সহ নরসিংদীতে কর্মরত বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রিক মিডিয়ার প্রতিনিধিগণ।