- ফিচার

মৃত্যুর দুয়ারে মানবতার অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করে চলেছে প্রশাসনের কুইক রেসপন্স টিম

মৃত্যু মানবজীবনের এক স্বাভাবিক ঘটনা। কিন্তু স্বাভাবিক মৃত্যুও যেন চলমান বাস্তবতায় এক পরম আরাধ্য।

করোনাকালে পারিবারিক ও সামাজিক সম্পর্ককে ছাপিয়ে কখনও দেখা দেয় মানবিক বিপর্যয়। করোনা আক্রান্ত হয়ে বা উপসর্গে নিয়ে মৃত্যুবরণকারী ব্যক্তির অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার মানবিক দাবি হুমকির মুখে পড়ে।

এরকম মানবিক বিপর্যয় ঠেকাতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে জেলা প্রশাসনের কুইক রেসপন্স টিম।

মধ্য কান্দাপাড়ার বাসিন্দা বাবু দিলীপ কুমার (৫৫) ছিলেন একজন হাসিখুশি সজ্জন ব্যক্তি। পরিবার পরিজন নিয়ে সুখেই কাটছিলো তার দিন। পরিবার অন্ত:প্রাণ এই মানুষটি গত ৯-১০ দিন ধরে করোনা উপিসর্গে ভুগছিলেন। গত ২৬ তারিখ সকাল থেকে তার শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। সন্ধ্যায় শ্বাসকষ্ট বেশি হলে পরিবারের সদস্যগণ তাকে দ্রুত হাসপাতালে নেয়ার জন্য সন্ধ্যা ৭:৩০ দিকে কুইক রেসপন্স টিমের সাথে যোগাযোগ করেন। খবর পেয়ে মান্যবর জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এবং দেশের অভ্যন্তরে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ কমিটি, নরসিংদী এর সম্মানিত সভাপতি সৈয়দা ফারহানা কাউনাইন মহোদয়ের নির্দেশে কুইক রেসপন্স টিমের আহবায়ক বিজ্ঞ এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ শাহ আলম মিয়া অনতিবিলম্বে তাকে নরসিংদী কোভিড ডেডিকেটেড হাসপাতালে প্রেরণ করেন। এ যাত্রায় সকল প্রচেষ্টা ব্যর্থ করে দিয়ে দিলীপ কুমার অন্তিম যাত্রায় শামিল হলেন যথাযথ ধর্মীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার মানবিক দাবি জানিয়ে।

রাত ১১:০০ টায় বিজ্ঞ এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট জনাব মো: শাহ আলম এর নেতৃত্বে কুইক রেসপন্স টিম মৃতের ধর্মীয় সৎকার করতে রওয়ানা দেন ব্যাপারীপাড়া শ্মশানে।

যে ব্যক্তি জীবিতাবস্থায় ছিলেন সকলের প্রিয়, করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু তাকে নিমিষেই করে ফেলে যেন সমাজ ও পরিবারের চোখের বালিতে। ব্যাপারীপাড়া শ্মশানের প্রবেশের সকল রাস্তা বন্ধ করে দেয় অজ্ঞাতনামা দুষ্কৃতকারীরা। উদ্দেশ্য একটাই – করোনা রোগীর দাহে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি। অথচ সবাইকেই একদিন চলে যেতে হবে।

রাতের আঁধারে মানবসৃষ্ট প্রতিবন্ধকতা দূর করে যখন চিতায় মুখাগ্নি হবে ঠিক তখনি প্রাকৃতিক দুর্যোগ মানবিকতার নতুন পরীক্ষা নিতে শুরু করলো যেন। মুষলধারায় বর্ষিত বারি যেন প্রকৃতির কান্না হয়ে ঝরতে লাগলো।

এমন ঝরের রাতে শবের পাশে ছিলেন না কোনো পরিবার পরিজন, অথচ দৃঢ় চোয়াল নিয়ে পাহারায় ছিলেন কুইক রেসপন্স টিম।

অবশেষে সকল মানবসৃষ্ট ও প্রাকৃতিক দুর্যোগ জয় করে পরদিন ২৭ মে ২০২০ তারিখ বেলা ১১:০০টায় যথাযোগ্য ধর্মীয় মর্যাদায় বাবু দিলীপ কুমার দাস মহাকালের অংশে পরিণত হন।

একদিন পৃথিবী থেকে মহামারী বিদায় নেবে। সেদিনের জন্য মানবিক শিক্ষা তৈরিতে এভাবেই কাজ করে যায় প্রশাসনের কুইক রেসপন্স টিম।

(নরসিংদী সদর উপজেলা করোনা সেলের আহব্বায়ক ও এসিল্যান্ড শাহ আলম মিয়ার ফেসবুক টাইমলাইন থেকে সংগৃহীত)

এখানে কমেন্ট করুন: