- সারাদেশ

নরসিংদীর ঘোড়াশাল পৌর নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থীর নির্বাচনী ক্যাম্প ভাংচুর হামলা, আহত ৪

মো.শফিকুল ইসলাম,(মতি)নিউজ সময়:
নরসিংদীর ঘোড়াশাল পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী তানজিরুল হক রনির ৪নং ওয়ার্ডের নির্বাচনী ক্যাম্প ভাংচুর ও হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে তার চার সমর্থক আহত হয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে ঘোড়াশাল পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডের গুচ্ছ গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। এ ব্যাপারে তানজিরুল হক রনি জেলা নির্বাচন অফিসারের বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।
বিদ্রোহী প্রার্থীর অভিযোগ, নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে তার লোকজন ও ভোটারদের ভয়ভীতি দেখানোর জন্যই আওয়ামী লীগের প্রার্থীর নির্দেশে এ হামলা চালানো হয়েছে। তবে অভিযোগ বিষয়ে মোঠফোনে যোগাযোগ করলে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আল মোজাহিদ হোসেন তুষার মোবাই ফোন রিসিভ করেনি।

হামলায় আহত ব্যক্তিরা হলেন ঘোড়াশাল পৌরসভার রাসেল (৩৫), নায়িম(২২), হৃদয়(২৫), রমেল(২০)। তারা উপজেলা স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে। তাঁদের শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকালে পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড গুচ্ছ গ্রামে বিদ্রোহী প্রার্থী তানজিরুল হক রনির ক্যাম্পে নির্বাচনী প্রচারণার সময় ২০/২৫ জন ছেলেরা হোন্ডা যোগে এসে ক্যাম্প ভাংচুর করে এত বাধাদিলে তাঁর কর্মী ও সমর্থদের উপর হামলা চালিয়ে ৪ জনকে গুরুতর আহত করে। এ সময় আশে পাশের লোকজন এগিয়ে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে আহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করে উপজেলা প্রাইভেট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

বিদ্রোহী প্রার্থী তানজিরুল হক রনি বলেন, আমার বাবা ছিলেন পলাশ আ.লীগের প্রতিষ্টাতা সভাপতি, আমি ছাত্র লীগ, যুবলীগ, আ.লীগ করে এখানে এসেছি। আমি নৌকার প্রার্থী ছিলাম কিন্তু দুঃখের বিষয় আমি নৌকা পাইনি। আমি জনগনের প্রার্থী হিসেবে মোবাইল মার্কা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছি। নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার পর প্রতিপক্ষ আমার নেতা-কর্মীদের ওপর একের পর হামলার ঘটনা ঘটাচ্ছে। পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থাই নিচ্ছে না। উল্টো আমাকে ও আমার নেতা-কর্মীদের হয়রানী করছে। অভিযোগের বিষয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আল মুজাহিদ তুষারের মুঠোফোনে বার বার যোগাযোগ করলেও তিনি রিসিভ করেনি।

অফিস সহকারী মোহাম্মদ খায়ের জানায় ঘোড়াশাল পৌর নির্বাচনের প্রতিক বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ১৮ অক্টোবর এর পর থেকে নির্বাহি ম্যাজিষ্ট্রেট এর মাধ্যমে নির্বাচনী এলাকায় মোবাইল কোর্ট টহল দিচ্ছে। এ বিষয়ে জেলা নির্বাচন অফিসার মো.মেজবাহ উদ্দিনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি আইন গত ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য থানায় প্রেরন করা হয়েছে।

এখানে কমেন্ট করুন: