- সারাদেশ

নরসিংদীর রায়পুরায় ইউপি নির্বাচন নিয়ে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ২০

মো.শফিকুল ইসলাম(মতি)নিউজ সময়:নরসিংদীর রায়পুরার কাচারিকান্দি গ্রামে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। সংঘর্ষের ঘটনায় আহত হয়েছেন কমপক্ষে ২০ জন।

আজ বৃহস্পতিবার ভোরে কাচারিকান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহতদের উদ্ধার করে রায়পুরাসহ নরসিংদীর বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত দুইজন রায়পুরা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রয়েছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

সংঘর্ষে নিহতরা হলেন- কাচারিকান্দি গ্রামের মারফত আলীর ছেলে সাদির মিয়া (২২) ও একই গ্রামের আসাদ মিয়ার ছেলে হিরন (৩৫)। আর গুলিবিদ্ধ হয়ে আহতরা হলেন- রমজান (১৮), মোকলেস (২২), আহিদ মিয়া (৪৩), জজ মিয়া (১৪), শামসুনাহার (৩৪), দানা মিয়া (৬০), আলামিন মিয়া (২০)।

টেঁটাবিদ্ধ হয়ে আহতরা হলেন- নাজির (২১), নাজমা (২৪), দানিস মিয়া (২৪), মো. হক মিয়া (৫০)। তারা সকলেই কাচারিকান্দি গ্রামের ছোট শাহ আলমের সমর্থক। এদের মধ্যে মুমূর্ষু অবস্থায় জজ মিয়াকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, এলাকার আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার পাড়াতলী ইউনিয়নের কাচারিকান্দিগ্রামে শাহআলম মেম্বার ও একই গ্রামের ছোট শাহ আলমের সাথে বিরোধ চলে আসছিল। বিরোধের জের ধরে গত ৬ মাস পূর্বে উল্লেখিত দু’গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। ওই সংঘর্ষে ছোট শাহআলম গ্রুপের ইয়াসিন ও শাহিন নামে দুই জন নিহত হয়।

এ ঘটনায় বড় শাহ আলম গ্রপের সদস্যরা গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে যায়। এরই মধ্যে ইউপি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা হয়। ইউপি নির্বাচনে অংশ নেওয়ার জন্য শাহ আলম মেম্বারের লোকজন গ্রামে ঢুকার চেষ্টা চালায়। এরই ধারাবাহিকতায় আজ বৃহস্পতিবার ভোর রাতে শাহআলম মেম্বারের গ্রুপের সদস্যরা টেঁটা বল্লম ও আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে গ্রামে ঢুকে। ছোট শাহ আলমের বাড়িতে হামলা চালায়। এখবর ছড়িয়ে পড়লে ছোট শাহ আলমের সমর্থকরা বাধা দেয়ার চেষ্টা চালায়।

এসময় উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়। এসময় প্রতিপক্ষের হামলায় গুলিবিদ্ধ হয়ে ছোট শাহ আলম গ্রুপের সাদির (২২) ও হিরন (৩৫) নামে দুই জন ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। এসময় প্রতিপক্ষের হামলায় ৮ জন গুলিবিদ্ধসহ কমপক্ষে ৩০ জন আহত হয়েছেন। এ সময় আহতদের উদ্ধার করে রায়পুরাসহ নরসিংদীর বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

রায়পুরা থানার ওসি মো. আজিজুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, দীর্ঘদিন পলাতক থাকার পর শাহ আলম মেম্বার ও তার সমর্থকরা ভোরে গ্রামে ফিরে আসে এবং প্রতিপক্ষের উপর হামলা চালায়। এতে দুই জন নিহত হন। আর বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।

এখানে কমেন্ট করুন: