- সারাদেশ

নীলফামারী সরকারি কলেজের উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা

নীলফামারী প্রতিনিধি: ‘তব বিদায়ের প্রান্তরে এসে দাঁড়াতে হয় সবারে বারে বারে’ আরো একবার হৃদয় বিদারক এই কথাটি সত্য প্রমাণিত হলো নীলফামারী সরকারি কলেজে। সোমবার (৯ জুলাই) কলেজটির ঐতিহ্যবাহী বিভাগ উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের অনার্স চূড়ান্ত বর্ষের শিক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তৈরী হয়েছিল আবেগঘন পরিবেশ। ডিপার্টমেন্ট প্রাঙ্গণে সংবর্ধনা উপলক্ষে আয়োজিত সভায় নিজেদের প্রাণের, অস্তিত্বের সাথে মিশে থাকা উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগ থেকে নিয়তির অমোঘ নিয়মে বিদায়ের আনুষ্ঠানিকতা মেনে নিতে গিয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে অনেকেই। প্রিয় শিক্ষকদের সাহচর্য পাবার সুযোগ আর থাকবে না ভেবে বিমর্ষ, স্মৃতিকাতর সবাই। বিদায়ী শিক্ষার্থীদের পক্ষে স্মৃতিচারণমূলক বক্তব্য দিতে গিয়ে প্রিয় শিক্ষক অহিদুল স্যারের প্রসঙ্গ টেনে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন নুর-এ-নাহারিন শাহ পিংকি, মহিবুল্লাহ্ আকাশ। শিক্ষার্থীদের মধ্যে আরো বক্তব্য দেন সোহেল রানা।

তারা সবাই দীর্ঘ চারটি বছর শিক্ষকদের সাহচর্য নিয়ে কথা বলতে গিয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। প্রিয় শিক্ষক অহিদুল হকও এসময় আবেগ ধরে রাখতে পারেননি। তিনিও কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।

অনুষ্ঠানে উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের বিভাগীয় প্রধান শাহজাহান আলীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে নানা দিক নির্দেশনামূলক বক্তব্য দেন নীলফামারী সরকারি কলেজের মাননীয় অধ্যক্ষ দেবীপ্রসাদ রায়, বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন উপাধ্যক্ষ মাহবুবুর রহমান ভুঁইয়া। আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন রসায়ন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান আব্দুল কাদের, অর্থনীতি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান মৃন্ময় বাড়ৈ প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে অতিথিবৃন্দকে বিদায়ী শিক্ষার্থীদের পক্ষে সম্মাননা প্রদান করা হয়। সেই সাথে বিভাগের কর্মচারীদের উপহার প্রদান করা হয়।

এসময় অনেকের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আব্দুল মোন্নাফ আলী, রোকসানা পারভীন, প্রদর্শক খাদেমুল ইসলাম। পুরো অনুষ্ঠানটির সঞ্চালনায় ছিলেন সবার প্রাণপ্রিয় শিক্ষক প্রভাষক অহিদুল হক।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানটি সম্পন্ন করতে সহযোগিতায় ছিল বিদায়ী শিক্ষার্থীদের মধ্যে মেহেদী হাসান রিপন, রোকনুজ্জামান রাব্বি, নুর আলম বাদশা, বাবলু, নুর আলম প্রমুখ।

এখানে কমেন্ট করুন: